সন্ধ্যা ৭:৩২ - ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

মাশরাফির বিদায়ে হোয়াইটওয়াশ জিম্বাবুয়ে

মাশরাফির বিদায়ে হোয়াইটওয়াশ জিম্বাবুয়ে

চট্টলা ডেস্ক: অধিনায়ক হিসেবে মাশরাফি বিন মর্তুজার শেষ ম্যাচে লিটন দাস ও তামিম ইকবালের ২৯২ রানের বিশ্ব রেকর্ড গড়া জুটিতে হোয়াইটওয়াশ হলো জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল।

ওয়ানডে সিরিজের তিন ম্যাচের শেষ খেলায় শুক্রবার ( ৬ মার্চ) ১২৩ রানের ব্যবধানে জয় পায় বাংলাদেশ। এই জয়ে ৩-০ ব্যবধানে ট্রফি নিশ্চিত করে টাইগাররা।

শুক্রবার সিলেট আন্তজার্তিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে বাংলাদেশকে প্রথমে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানায় জিম্বাবুয়ে। ব্যাটিংয়ের শুরু থেকেই রীতিমতো তাণ্ডব চালান তামিম ইকবাল ও লিটন কুমার দাস। বিকাল চারটায় বৃষ্টি শুরু হওয়ার আগে ৩৩.২ ওভারে ১৮২ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন তামিম-লিটন।

দুই ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর পূনরায় খেলা শুরু হয়, তবে ম্যাচ নির্ধারণ হয় ৪৩ ওভারে। বৃষ্টির আগে ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেয়া লিটন ছাড়িয়ে যান দেশ সেরা ওপেনার তামিম ইকবালকে। সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে নিজের আগের গড়া ১৫৪ রানের ইনিংসের রেকর্ড ভেঙে দেশের হয়ে সর্বোচ্চ ১৫৮ রানের ইনিংস খেলেছিলেন তামিম। দুই দিনের ব্যবধানে তার সেই রেকর্ড ভেঙে দেন লিটন দাস।

ইনিংস শেষ হওয়ার ১৩ বল আগে ১৪৩ বলে ১৬টি চার ও ৮টি ছক্কার সাহায্যে ১৭৬ রানের ইনিংস খেলে সাজঘরে ফেরেন লিটন দাস। লিটনের বিদায়ের আগেই ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৩ তম এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ২৩ তম সেঞ্চুরি হাঁকান তামিম ইকবাল। ইনিংসের শুরুতে ওপেন করতে নেমে শেষ বল পর্যন্ত খেলে যান তিনি। লিটনের বিদায়ের আগেই ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৩তম এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ২৩তম সেঞ্চুরি হাঁকান তামিম ইকবাল। ইনিংসের শুরু থেকে শেষ বল পর্যন্ত খেলে যান তিনি।

লিটন-তামিমের জোড়া সেঞ্চুরিতে ৪৩ ওভারে ৩ উইকেটে ৩২২ রানের পাহাড় গড়ে বাংলাদেশ।

জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের গতির শিকার হয়ে সময়ের ব্যবধানে উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে। তবে দলটির তারকা ব্যাটসম্যান সিকান্দার রাজার ৬১ আর ওয়েসলি মাধেভার ৪২ রানের ইনিংসে ভর করে ৩৭.৩ ওভারে শেষ পর্যন্ত ২১৮ রানে অলআউট হয় জিম্বাবুয়ে। ১২৩ রানের সহজ জয় পায় বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ: ৪৩ ওভারে ৩২২/৩ (লিটন ১৭৬, তামিম ১২৮*, আফিফ ৭, মাহমুদউল্লাহ ৩)।

জিম্বাবুয়ে: ৩৭.৩ ওভারে ২১৮/১০ (সিকান্দার রাজা ৬১, মাধেভার ৪২; সাইফউদ্দিন ৪/৪১)।

ফল: বাংলাদেশ ১২৩ রানে জয়ী।