রাত ৩:৪৪ - ১২ই আগস্ট, ২০২০ ইং

দেশের সবচেয়ে লম্বা মানুষ জিন্নাত আলী আর নেই

দেশের সবচেয়ে লম্বা মানুষ জিন্নাত আলী আর নেই

চট্টলা ডেস্কঃ

বাংলাদেশের সবচেয়ে লম্বা মানুষ কক্সবাজারের রামুুুর গর্জনিয়ার জিন্নাত আলী চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন। মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) ভোর রাত ৩টা ৫০ মিনিটের দিকে তাঁর মৃত্যুবরণ হয় বলে নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজার ৩ (সদর-রামু) আসনের সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল। তাঁর মরদেহ চট্টগ্রাম থেকে গর্জনিয়া ইউনিয়নে আনা হচ্ছে।

পারিবারিক সূত্র জানায়- জিন্নাত আলীকে
গত সোমবার ২৭ এপ্রিল সকালে অজ্ঞান অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিউরো সার্জারি বিভাগে ভর্তি করা হয়। বিকেলে তাঁকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) নেওয়া হয়।

এর আগে রোববার জিন্নাত আলীকে হাসপাতালের নিউরোলজি বিভাগে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার মস্তিষ্কে টিউমার ধরা পড়ে। পরে সোমবার নিউরো সার্জারিতে নিয়ে যাওয়া হয়। তখন তিনি অজ্ঞান ছিলেন। তাঁকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে কৃত্রিম শ্বাস প্রশ্বাস দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয় বলে জানান চিকিৎসকেরা।

নিউরো সার্জারি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান নোমান খালেদ চৌধুরী বরাত দিয়ে সাইমুন সরওয়ার কমল এমপি বলেন, জিন্নাতের মস্তিষ্কে একটা বড় টিউমার রয়েছে। তাঁকে অজ্ঞান অবস্থায় এখানে ভর্তি করা হয়। তাঁর অজ্ঞানের মাত্রা এত বেশি যে সেটাকে স্বাভাবিক বলা যায় না। এই অবস্থা থেকে তাই তাকে ফেরানো যায়নি।

কক্সবাজারের রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের বড়বিল গ্রামের আমির হামজার ছেলে জিন্নাতের উচ্চতা ৮ ফুট ২ ইঞ্চি। তিনি বর্তমানে বাংলাদেশের সবচেয়ে লম্বা মানুষ। ১৯৯৬ সালে জিন্নাত আলী জন্মগ্রহণ করেন। ১০ বছর বয়স থেকে জিন্নাত আলীর শরীরের অস্বাভাবিক উচ্চতা বৃদ্ধি শুরু হয়। সেটি একসময় বেড়ে ৮ ফুট ২ ইঞ্চিতে গিয়ে দাঁড়ায়। জন্ম থেকে সে নানা শারীরিক জটিলতায় ভুগছিল। কক্সবাজার ৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমলের মাধ্যমে জিন্নাত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বাক্ষাত পান। এর পর থেকে সরকার তাঁর পাশে দাড়ান। সরকারিভাবে জিন্নাতকে জমি, ঘর ও দোকান প্রদান করা হয়। ২০১৮ সালে জিন্নাত আলীকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়। তখন চিকিৎসকেরা তাঁর মস্তিষ্কে টিউমার ছাড়াও হরমোনসহ নানা জটিলতা ছিল বলে জানিয়েছিলেন।