রাত ২:০৩ - ১৭ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং

স্পিরিট পানে ৫ জনের মৃত্যুর

print

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে হোমিও দোকানের স্পিরিট পান করে পাঁচজনের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করেছে পুলিশ।

গতকাল (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুর থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত এই মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় মো. লিটন নামের একজনসহ আরও অন্তত তিনজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসার জন্য ঢাকায় ও পার্শ্ববর্তী জেলা ফেনীতে পাঠিয়েছেন আত্মীয় স্বজনেরা। তবে এ ব্যাপারে কোনো কিছু বলতে রাজি হননি তারা। এলাকাবাসী জানায়, লোকলজ্জার ভয়ে তড়িঘড়ি করে তিনজনকে দাফন করেছেন স্বজনেরা।

নিহতরা হলেন, উপজেলার মোহাম্মদ নগর গ্রামের মৃত ফয়েজ আহমদের ছেলে মহিন উদ্দিন (৪০), বসুরহাট পৌরসভার বাঁশ ব্যাপারী বাড়ির নুর নবী মানিক (৫০), ক্ষিরত মহাজন বাড়ির অনিল রায়ের ছেলে রবি লাল রায় (৫৭), চরকাঁকড়া ইউনিয়নের টেকের বাজার এলাকার আবদুল খালেক (৭২), সিরাজপুর ইউনিয়নের মতলব মিয়ার বাড়ি সংলগ্ন সবুজ (৬০)।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আরিফুর রহমান জানান, রাতে তারা বিভিন্ন মাধ্যমে হোমিও স্পিরিট খেয়ে পাঁচজন মারা যাওয়ার খবর পান। পরে খোঁজ নিতে গেলে নিহতের স্বজনরা জানান- তারা সবাই ‘হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে’ মারা গেছেন এবং ইতিমধ্যে তিনজনকে দাফন করা হয়েছে। রবি লাল রায় ও নুর নবী মানিকের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও জানান, ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর এদের মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। এ ঘটনায় রাতে অভিযান চালিয়ে হোমিও স্পিরিট বিক্রেতা সৈয়দ জাহেদুল ইসলাম ও তার ছেলে পিয়মকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

print